Jump to content

Wn/bn/বিরোধীদের অহ্বানে পদত্যাগে অস্বীকৃতি ইংলাক সিনিওয়াত্রার

From Wikimedia Incubator
< Wn‎ | bn
Wn > bn > বিরোধীদের অহ্বানে পদত্যাগে অস্বীকৃতি ইংলাক সিনিওয়াত্রার
নিরীক্ষণের জন্য অপেক্ষমান!  এই নিবন্ধটি ৬ জুলাই, ২০২৪ অনুযায়ী নিরীক্ষণ বা পর্যালোচনা করা হয়নি। এখানে প্রদর্শিত তথ্যগুলোর পুনঃমূল্যায়ন করুন। (আরও জানুনশোধন)

মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৩

ইংলাক সিনাওয়াত্রা
রাজনীতি ও দ্বন্দ্ব
রাজনীতি ও দ্বন্দ্ব
সম্পর্কিত শিরোনামগুলো
অংশগ্রহণ

থাইল্যান্ডে বিরোধীদের আহ্বানে প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে পদত্যাগের খবর নাকচ করে দিয়েছেন থাইল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী ইংলাক সিনাওয়াত্রা। থাইল্যান্ডের ইংলাক সরকারকে নির্বাসিত নেতা থাকসিন সিনাওয়াত্রা নিয়ন্ত্রন করছেন এমন অভিযোগ তুলে নভেম্বর, ২০১৩ সালে বিরোধীরা বিক্ষোভের ডাক দেয়।

বিক্ষোভের মুখে ইংলাক সরকার সংসদ ভেঙ্গে দিয়ে আগাম নির্বাচনের ঘোষণা দেন ও আগামী ২রা ফেব্রুয়ারি সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য প্রস্তাব করেন। কিন্তু তারপরও বিরোধীরা আন্দোলন অব্যাহত রেখে ইংলাকের পদত্যাগের দাবি জানায়। প্রধানমন্ত্রী ইংলাক সিনিওয়াত্রা বলেন, “আমি অবশ্যই সংবিধান অনুসারে তত্বাবধায়ক সরকারের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে পরবর্তী নির্বাচন সুষ্ঠভাবে সম্পন্ন করব।” বিক্ষোভকারীদের প্রতি তিনি বলেন, “আন্দোলন থামিয়ে নির্বাচনরে মাধ্যমে একটি নির্বাচিত সরকারকে ক্ষমতায় নিয়ে আসুন।”

উল্লেখ্য, উল্লেখ্য, ২০০৬ সালে থাইল্যান্ডের সাবেক প্রধানমন্ত্রী থাকসিন সিনাওয়াত্রা এক সেনা অভূত্থানে ক্ষমতাচুত্য হন এবং এরপর ২০১১ সালে আন্দোলনের মুখে সেনাবাহিনী নির্বাচনের আয়োজন করে আর নির্বাচনে জয় লাভ করেন থাকসিনের ছোট বোন ইংলাক সিনাওয়াত্রা।


উৎস[edit | edit source]

  • "Thailand protests: PM Yingluck rejects resignation call" — বিবিসি, ডিসেম্বর ১০, ২০১৩
  • Simon Tisdall। "Yingluck's snap election will not cure Thailand's ills" — দ্য গার্ডিয়ান, ডিসেম্বর ১০, ২০১৩
  • "Thai PM refuses to step down" — iafrica, ডিসেম্বর ১০, ২০১৩

শেয়ার করুন!

ইমেইল করুন এই খবরকে

ফেসবুকে শেয়ার করুন

টেলিগ্রামে শেয়ার করুন

লিঙ্কডইনে শেয়ার করুন

টুইটারে শেয়ার করুন

শেয়ার করুন!

ইমেইল করুন এই খবরকে

ফেসবুকে শেয়ার করুন

টেলিগ্রামে শেয়ার করুন

লিঙ্কডইনে শেয়ার করুন

টুইটারে শেয়ার করুন