Jump to content

Wn/bn/ভারত: আসন্ন ২০২৪ সালের নির্বাচনের জন্য প্রায় ২৬টি বিরোধী দল নতুন জোট গঠন করেছে

From Wikimedia Incubator
< Wn‎ | bn
Wn > bn > ভারত: আসন্ন ২০২৪ সালের নির্বাচনের জন্য প্রায় ২৬টি বিরোধী দল নতুন জোট গঠন করেছে
নিরীক্ষণের জন্য অপেক্ষমান!  এই নিবন্ধটি ২০ জুন, ২০২৪ অনুযায়ী নিরীক্ষণ বা পর্যালোচনা করা হয়নি। এখানে প্রদর্শিত তথ্যগুলোর পুনঃমূল্যায়ন করুন। (আরও জানুনশোধন)

শুক্রবার, ২৮ জুলাই ২০২৩

এই প্রতিবেদনটি শুনুন (3 মিনিট)
অডিও উইকিসংবাদ আইকন
উক্ত অডিও ফাইলটি এই নিবন্ধটির ২৮ জুলাই ২০২৩ (2023-07-28) তারিখের একটি সংশোধন থেকে তৈরি করা হয়েছে এবং পরবর্তী সম্পাদনাগুলিকে প্রতিফলিত করে না।
নির্বাচনী এলাকা অনুযায়ী আসন। যেহেতু এটি একটি এফপিটিপি নির্বাচন, আসনের মোট সংখ্যা প্রতিটি দলের মোট ভোট ভাগের সমানুপাতিকভাবে নির্ধারিত হয় না, বরং প্রতিটি নির্বাচনী এলাকার বহুত্ব দ্বারা নির্ধারিত হয়।
ভারত
ভারত
সম্পর্কিত শিরোনামগুলো
অংশগ্রহণ
ভারত
ভারত

গত সপ্তাহে একটি সম্মলনে, ভারতের দুই ডজনেরও বেশি বিরোধী দল ইন্ডিয়ান ন্যাশনাল ডেভেলপমেন্টাল ইনক্লুসিভ অ্যালায়েন্স (INDIA) নামক একটি নতুন জোট প্রতিষ্ঠা করতে একত্রিত হয়েছিল। এর আগেও, ২৩ শে জুন বিরোধীরা একটি বৈঠক জড়িত হয়েছিলেন যেটি বিহারের মুখ্যমন্ত্রী, নীতীশ কুমার এবং উপমুখ্যমন্ত্রী তথা রাষ্ট্রীয় জনতা দল (আরজেডি) নেতা তেজস্বী যাদবের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হয়েছিল। জোটের প্রাথমিক লক্ষ্য হল আসন্ন ২০২৪ সালের সংসদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করা এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে ক্ষমতাসীন ভারতীয় জনতা পার্টির সাথে (বিজেপি) স্পর্ধা করা।

বেঙ্গালুরুতে অনুষ্ঠিত একটি গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকের পরে INDIA (জোটের নাম) গঠনের ঘোষণা করা হয়েছিল, যে সময়ে বিভিন্ন বিরোধী দলের নেতারা গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ রক্ষা এবং দেশের সাংবিধানিক নীতিগুলি সমুন্নত রাখার প্রতি তাদের প্রতিশ্রুতির উপর জোর দিয়েছিলেন।

বিজেপির সমালোচকরা হিন্দু জাতীয়তাবাদী আলোচ্যসূচি নিয়ে দলের কথিত প্রচারের বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন, যেটির কারণে ভারতীয় সমাজে ধর্মীয় মেরুকরণ বেড়েছে। বিজেপি যদিও বজায় রাখে যে তারা সমস্ত ভারতীয়দের স্বার্থের প্রতিনিধিত্ব করে এবং সমগ্র জাতির বৃদ্ধি ও উন্নয়নের জন্য নিবেদিত থাকে।

নবগঠিত ইন্ডিয়া জোট টি, জাতীয় কংগ্রেস, আম আদমি পার্টি (এএপি), যা পাঞ্জাবদিল্লি শাসন করছে এবং বর্তমানে পশ্চিমবঙ্গে ক্ষমতায় থাকা তৃণমূল কংগ্রেস সহ, জাতীয় ও আঞ্চলিক দলগুলির মিশ্রণ নিয়ে গঠিত। জোটের বৈচিত্র্যময় গঠন বিভিন্ন আঞ্চলিক স্বার্থ এবং দৃষ্টিভঙ্গি প্রতিফলিত করে, যা তারা প্রতিনিধিত্ব করার লক্ষ্য রাখে। কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী ২০২৪ সালের নির্বাচনকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং ইন্ডিয়া জোটের মধ্যে একটি প্রতিদ্বন্দ্বিতা হিসাবে তৈরি করেছেন। এই রাজনৈতিক একত্রীকরণ বিজেপির কাছে একটি উল্লেখযোগ্য প্রতিদ্বন্দ্বিতা উপস্থাপন করে, যেটি সাম্প্রতিক বছরগুলিতে ব্যাপক জনপ্রিয়তা এবং নির্বাচনী সাফল্য উপভোগ করেছিল।

ইন্ডিয়া জোটটি রাজনৈতিক মঞ্চে তাদের উপস্থিতি দৃঢ় করার সাথে সাথে, এটি আঞ্চলিক প্রতিদ্বন্দ্বিতাগুলি মিটমাট করার এবং নির্বাচনের জন্য একটি সমন্বিত কৌশল বিকাশের কাজটির মুখোমুখি হয়৷ অন্যদিকে, বিজেপি তাদের নিজস্ব জোট ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক অ্যালায়েন্স (এনডিএ) কে শক্তিশালী করার জন্য তাদের অব্যাহত রাজনৈতিক প্রাধান্য নিশ্চিত করার জন্য ব্যবস্থা নিচ্ছে।

ভারতের রাজনৈতিক পরিস্থিতি ২০২৪ সালের নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত হওয়ার সাথে সাথে, প্রতিযোগী দলগুলি কীভাবে ভোটারদের সাথে যুক্ত হবে এবং দেশের বিভিন্ন আকাঙ্খা এবং স্বার্থকে মোকাবেলা করবে তার উপর জনগণের লক্ষ রয়েছে।

সহপ্রকল্প নিবন্ধ সমূহ[edit | edit source]

আরও পড়ুন[edit | edit source]



উৎস[edit | edit source]


শেয়ার করুন!

ইমেইল করুন এই খবরকে

ফেসবুকে শেয়ার করুন

টেলিগ্রামে শেয়ার করুন

লিঙ্কডইনে শেয়ার করুন

টুইটারে শেয়ার করুন

শেয়ার করুন!

ইমেইল করুন এই খবরকে

ফেসবুকে শেয়ার করুন

টেলিগ্রামে শেয়ার করুন

লিঙ্কডইনে শেয়ার করুন

টুইটারে শেয়ার করুন